Minhazul Asif

Personal Blog of

Minhazul Asif

Personal Blog of

Minhazul Asif

কালি লিনাক্স কি? কালি লিনাক্সের বেশ কিছু টুলস এবং কিভাবে কালি লিনাক্স ইনষ্টল করতে হয়?

কালি লিনাক্স কি

কালি লিনাক্স কি ?

আমরা সবাই জানি, কম্পিউটারে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করতে হয়। অপারেটিং সিস্টেম ছাড়া কম্পিউটার চালানো সম্ভব হয় না। এসব অপারেটিং সিস্টেম এর বিভিন্ন নাম রয়েছে। যেমনঃ Microsoft Windows, Linux, OS ইত্যাদি। আর এই লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেমের একটা পার্ট হচ্ছে কালি লিনাক্স।
এটি তৈরি করা হয়েছে মূলত হ্যাকিং এর জন্য। এটি একটি ওপেন সোর্স অপারেটিং সিস্টেম। অর্থাৎ, আপনি চাইলে প্রোগ্রামিং এর মাধ্যমে এর থিম পরিবর্তন করতে পারবেন।
কালি লিনাক্সে ৬০০’র ও বেশি হ্যাকিং টুলস ব্যবহার করা হয়েছে। আপনি চাইলে আরো টুলস ইন্সটল বা ক্লোন করতে পারেন।

কালি লিনাক্স কেন ডেভেলপ করা হল?
———————————–

আমরা সকলেই জানি গেমিং এর জন্য উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের জুড়ি হয় না, এইরকমই নির্দিষ্ট কিছু কাজের উদ্দেশে নির্দিষ্ট কিছু অপারেটিং সিস্টেম ডেভেলপ করা হয়েছে এবং হচ্ছে। এরই মধ্যে কালি লিনাক্স একটি লিনাক্স বেসড অপারেটিং সিস্টেম যা ডেভেলপ করা হয়েছিল Ethical Hacking, Network Security, Digital Forensics ও Penetration Testing এর মত কাজ গুলিকে সহজেই করার জন্য।

কিভাবে কালি লিনাক্স ইনষ্টল করতে হয়?
———————————–

ভার্চুয়ালাইজেশন ( Virtualization ) – Virtualbox বা VMware এর মত সফটওয়্যার গুলি ব্যবহার করে মেইন অপারেটিং সিস্টেম এর মধ্যে ভার্চুয়ালি কালি লিনাক্স রান করানো। এক্ষেত্রে আমরা VMware ইউজ করে কালি লিনাক্স ইন্সটল করব ।
Download link of kali for VMwire : https://www.kali.org/get-kali/#kali-virtual-machines
কালি লিনাক্স কি
> Open VMWire
> Open A Virtual Machine
> Choose the kali linux .vmx file
> edit VM Settings
> Memory : 2048 MB
> Processor Core allocation: 4
> display: Accelerate 3d Graphic
> Ok
> Play VM
> When Kali Linux run > User : kali & Password: kali


Get root access :

sudo su
User: kali
Pass: kali
কালি লিনাক্স এর রুট অ্যাক্সেস এ আমরা প্রবেশ করলে root@kali দেখতে পাবো।
এবার Command মাধ্যমে আমাদের কালি লিনাক্স এ কাজ করতে হবে।

কালি লিনাক্স এর কিছু Command আমরা পরবর্তীতে দেখব ।

 

কালি লিনাক্সের বেশ কিছু টুলস
———————————–

Penetration Testing এবং Hacking এর জন্য কালি লিনাক্সে 600 এরও বেশি টুলস প্রি-ইনষ্টল করা থাকে, তাদের মধ্যে কিছু জনপ্রিয় ও বহুল ব্যবহৃত টুলস গুলি হল –
aircrack-ng – এটি একটি Wifi হ্যাকিং টুল, এর সাহায্যে WEP এবং WPA/WPA2 প্রটোকল যুক্ত Wifi গুলির প্যাকেজ ক্যাপচার এবং হ্যাশ ক্র্যাক করর চেষ্টা করে Dictionary Attacks, Bruteforce Attack এর মত হ্যাকিং টেকনিক গুলি কাজে লাগিয়ে।
Wireshark – এটি একটি নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি টুল, নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ডেটা প্যাকেট আদান-প্রদানকে Analysis এবং Manipulate করার জন্য ব্যবহার হয়। ইন্টারনেটে আমরা কোন ডেটা শেয়ার করলে সেটা ডেটা প্যাকেট হিসাবে সার্ভারে যাওয়া আসা করে। এই ডেটা প্যাকেট গুলির মধ্যে ডেটা, হেডার, সোর্স আইপি, ডেস্টিনেশন আইপি প্রভৃতি ইনফরমেশন থাকে যার কিছু কিছু ইনফরমেশন Wireshark টুলটির সাহায্যে Access এবং Manipulate করা সম্ভব যদি একই নেটওয়ার্ক থেকে কানেক্টেড থাকা যায়।
John the Ripper – এটি Password Security Auditing এবং Password Recovery টুল। পাসওয়ার্ড ক্র্যাকিং এর জন্য এটি খুব জনপ্রিয় একটি হ্যাকিং টুল যা Dictionary Attacks, Bruteforce Attack এর মত হ্যাকিং টেকনিক ব্যবহার করে থাকে।
Nmap – এটি একটি Networks এবং Security Auditing টুলস। এই টুলটির সাহায্যে কোনো কম্পিউটার নেটওয়ার্কে ডেটা প্যাকেট সেন্ড করে তার রেসপন্স Analysis করে নেটওয়ার্কটির hosts, ports ও versions সম্পর্কে তথ্য জোগাড় করা যায়। এছাড়াও নেটওয়ার্কে কোনো পোর্ট ওপেন আছে কি না সিকিউরিটি চেক করতেও এই Nmap ব্যবহার করা হয়।

BurpSuite
 – এটি ওয়েব বেসড অ্যাপ্লিকেশনের সিকিউরিটি টেস্টিং টুল। এই টুলটি অনেক গুলি ছোট ছোট টুল নিয়ে তৈরি। এই টুলটি প্রক্সি ব্যবহার করে থাকে নেটওয়ার্ক মনিটরের জন্য।
See freelancing blogs here.

Share on -

Related Articles

Minhazul Asif

আমি মিনহাজুল আসিফ,

Entrepreneur, Instructor, Web Developer, Freelancer & Cyber Sucurity Expert.

নিজের আইডিয়া গুলো সবার সাথে শেয়ার করার জন্য এই ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরী করা। আশা করি আমার ব্লগ পড়ে অনেকেই উপকৃত হবে।

ক্যাটাগরি সমূহ: